মনসা

উজানে ভেসেছি গঙ্গা গা ভরতি মাদুলি কবজ কড়ি হাত পা জড়িয়ে আছে শরীর জড়িয়ে আছে শীতল শরীর আহা মন আমার উথালপাতাল কত খাল বিল নদী নদ পেরিয়ে এলাম তোকে বোঝাব কেমনে গঙ্গা কী যে সুখে ভেসে যাই ডানে বাঁয়ে হা পিত্যেশ ছড়ানো সংসারে কত ভাই বন্ধু আত্মীয় স্বজন দেয় উলুধ্বনি নায়ে নায়ে আবাল্য সখীরা ডাকে না যাও রে ভরা গাঙে ডিঙা ডোবে ডিঙা ভাসে দেবর ননদ জা সতীন শাশুড়ি চলে পাশে ভেসে জলটানে চলেছি অবলা নারী বিভাজিত জিহ্বার আশ্রমে

 

২২/৩/১৯৮৯

 

Flag Counter

দাবা

আমরা বংশানুক্রমে হাতিশালে ঘোড়াশালে হাতিঅন্ত ঘোড়াঅন্ত প্রাণ নিয়ে পড়ে থাকি অবসরে দাবা খেলি আমি আর জ্ঞানপাপী খাকি দারোয়ান খেলি তাই গুটিশুটি পড়ে থাকা গুটি খাই হাতি ঘোড়া চাঁদ মারি ইচ্ছামতো কখনো বা খাকির যে আটজন কালো কাফ্রি সৎভাই ধরে ধরে তাদের পুড়িয়ে মারি গন্ধ শুঁকে নৌকা আসে ভোগ চায় রাজামন্ত্রীদানবদেবতা দেয় রাজকন্যা ভেট আমি নতুন নিয়মে খেলি শক্তিমদমত্ত বিষকন্যা নিয়ে চৌষট্টি পর্যায়ে খুলে পরাবাৎসায়ন

১৫/৩/১৯৮৯

 

পূর্ণিমায় ধানক্ষেতে

ছায়াময় ফাঁদ আর মাছদের আনন্দভ্রমণ
ঘুঘু ঘুঘু শাদা বক রোদে রোদে ঘুরে
প্রখর দুপুরে যায় হাটবার ভেঙে

পূর্ণিমায় ধানক্ষেতে আগুন জ্বেলেছি তাই
অর্ধেক জলের খালে পাগল এসেছে

 

৫ /৩/১৯৮৯

 

Flag Counter